মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

আপত্তি শুনানী ও জেরা

শুনানী এবং জেরা

আদালতে শুনানীর সময় ও তারিখ কীভাবে নির্ধারিত হবে?

গ্রাম আদালত এর চেয়ারম্যান মামলা শুনানীর স্থান,তারিখ ও সময় নির্দিষ্ট করে পক্ষদ্বয়কে জানিয়ে দিবেন। আদালত তাদের মামলার স্ব-স্ব সমর্থনে প্রয়োজনীয় সাক্ষ্য প্রমাণ পেশ করারও নির্দেশ দিতে পারেন।

গ্রাম আদালতের শুনানীর সময় হলফনামা পড়ার প্রয়োজন আছে কি?

গ্রাম আদালতে শুনানীর সময়ে আবেদনকারী,প্রতিবাদী এবং ‍সাক্ষীদের অবশ্যই হলফনামা পড়তে হবে।

কে কাকে জেরা করবেন?

 গ্রাম আদালতের শুনানীর সময়ে প্রথমে প্রতিবাদীকে আবেদনকারী ও তার সাক্ষীদের জেরা করবেন।
পরবর্তীতে আবেদনকারী প্রতিবাদী ও তার সাক্ষীদের জেরা করবেন।

আবেদনকারী,প্রতিবাদী এবং সাক্ষীর জবানবন্দী লিপিবদ্ধ করার প্রয়োজন আছে কি?

আবেদনকারী,প্রতিবাদী এবং ‍সাক্ষীর জবানবন্দী ‍অবশ্যই আলাদা আলাদা কাগজে লিপিবদ্ধ করতে হবে।

গ্রাম আদালতের শুনানী মুলতবী রাখা যায় কিনা?

সাধারণত গ্রাম আদালত নির্ধারিত দিনে মামলার শুনানী করবেন। পর্যাপ্ত কারণ থাকলে শুনানী মূলতবী করা যাবে। তবে কোন ক্রমেই সাত দিনের বেশি শুনানী মূলতবী রাখা যাবে না।

মামলার শুনানী চলাকালীন সময়ে আবেদনকারী অনুপস্থিত থাকলে কি হবে?

গ্রাম আদালতে মামলার শুনানী চলাকালীন সময়ে আবেদনকারী অনুপস্থিত থাকলে আদালত সময় প্রদান করতে পারে অথবা মামলাটি খারিজ করতে পারে।

গ্রাম আদালতে মামলার শুনানী চলাকালীন সময়ে প্রতিবাদী অনুপস্থিত থাকলে কী হবে?

গ্রাম আদালতে মামলার শুনানী চলাকালীন সময়ে প্রতিবাদী অনুপস্থিত থাকলে আদালত সময় প্রদান করতে পারে অথবা মামলাটির এক তরফা সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

গ্রাম আদালতে এডভোকেট নিয়োগ করা যাবে কি না?

গ্রাম আদালতে এডভেোকেট নিয়োগ করা যাবে না। তবে পর্দানশীল মহিলার ক্ষেত্রে বিনা অর্থে শুনানীতে তার পক্ষে কথা বলার জন্য কোন প্রতিনিধি নিয়োগ করা যেতে পারে।